Home / ড্রাই স্কিন / শীতে শুষ্ক ত্বককে স্বাভাবিক উপায়ে ময়শ্চারাইজ করার উপায়

শীতে শুষ্ক ত্বককে স্বাভাবিক উপায়ে ময়শ্চারাইজ করার উপায়

শীতকাল এলেই শুষ্ক ত্বকের মানুষদের চিন্তার শেষ থাকে না। শীতে ত্বক শুকিয়ে যায়। স্বাভাবিক আর্দ্রতা হারিয়ে ফেলে। ফলে এই সময়ে নতুন করে যত্ন নেওয়ার প্রয়োজন হয় বৈকি। ত্বক শুকিয়ে গেলে নানা ধরনের সমস্যা তৈরি হতে পারে। তা থেকে বাঁচতে আমরা বাজার চলতি নানা ধরনের ক্রিম, লোশন, ময়শ্চারইজার ব্যবহার করে থাকি। তবে তাতে লাভের চেয়ে ক্ষতি বেশি হয়। তাই বাজারে তৈরি উপাদানে ভরসা না রেখে বাড়িতে থাকা নানা স্বাভাবিক জিনিসকে ব্যবহার করে ত্বককে স্বাভাবিক উপায়ে ময়শ্চারাইজ করতে পারি আমরা। কীভাবে এমন করতে পারেন, তা জেনে নিন নিচের স্লাইডে।

মধু ও ডিমের কুসুম মধু ও ডিমের কুসুম শুষ্ক ত্বকের জন্য দারুণ উপযোগী। মধু ও ডিমের মিশ্রণ ত্বককে নরম ও মসৃণ করে তোলে। একইসঙ্গে ময়শ্চারাইজও করে। এই দুটির মিশ্রণ তৈরি করে গরম জলে মুখ ধুয়ে ফেলুন।

নারকেল তেল শুষ্ক ত্বকের জন্য নারকেল তেল সবসময়ই উপযোগী। সব ধরনের ত্বকে নারকেল তেল ব্যবহার করা যেতে পারে। এতে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্টস ত্বকের স্বাভাবিক আর্দ্রতা বজায় রাখতে সাহায্য করে। তবে উপকারিতা এক থাকলেও যুগের সঙ্গে সঙ্গে এখন এই তেলের ব্যবহার কমে গিয়েছে।

দুধ ও মধু দুই চা চামচ দুধের মধ্যে দুই চা চামচ মধু মিশিয়ে সেই মিশ্রণ মুখে মেখে রাখুন। কিছুক্ষণ রেখে তা ধুয়ে ফেলুন।

অ্যালো ভেরা ও দুধ শুষ্ক ত্বকের সমস্যা মেটাতে অ্যালো ভেরার সঙ্গে দুধ মিশিয়ে মাখলে দারুণ ফল পাওয়া যায়। দুটিকে মিশিয়ে মুখে মেখে কিছুক্ষণ রেখে ধুয়ে ফেলুন।

কলা ও দই কলা ও দই দুটোই যেকোনও ত্বকের জন্য ভালো। শুষ্ক ত্বকের ক্ষেত্রে দুটিকে আরও বেশি করে ব্যবহার করা উচিত। অর্ধেক পাকা কলা কয়েক চামচ টক দইয়ের সঙ্গে মিশিয়ে মুখে মাখুন। মিনিট ২০ রেখে জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

Check Also

কাঁচা সোনার মতো উজ্জ্বল ত্বক চাইলে ভরসা রাখতেই হবে কাঁচা হলুদে

রূপটানের কথা উঠলে একদম প্রথমদিকেই থাকবে হলুদের নাম। এমনিতেই যে কোনও উৎসবে পার্বণ হলুদ ছাড়া …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *